আজ ১৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কিশোরগঞ্জে মহকুমা আ’লীগের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ভাষা সৈনিক আবুল বাশার মহিউদ্দিনের ৪৯তম শাহাদৎবার্ষিকী পালিত

 

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
কিশোরগঞ্জ মহকুমা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক,
ভাষাসৈনিক ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক শহীদ আবুল বাশার মহিউদ্দিন
আহমেদের ৪৯তম শাহাদৎবার্ষিকী পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে
কিশোরগঞ্জে ভোরের আলো সাহিত্য আসর, শহীদ পরিবার ও স্বজনদের
আয়োজনে শহরের থানা সংলগ্ন মডার্ণ ডেন্টালে আলোচনা সভা ও
দোয়ার আয়োজন করা হয়।
এতে সভাপতিত্ব করেন ভোরের আলো সাহিত্য আসরের সভাপতি নাট্যকার
মোঃ আজিজুর রহমান। প্রধান অতিথি ছিলেন বিআরডিবির সাবেক
পরিচালক বীরমুক্তিযোদ্ধা মোঃ নিজাম উদ্দিন। প্রধান আলোচক ছিলেন
শহীদ পরিবারের জামাতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ শওকত উদ্দিন ভূঁইয়া।
ভোরের আলো সাহিত্য আসরের প্রতিষ্ঠাতা মোঃ রেজাউল হাবীব রেজার
পরিচালনায় আলোচনায় অংশ নেন মানব জমিনের স্টাফ রিপোটার্র মোঃ
আশরাফুল ইসলাম, স্বাধীনবাংলা বেতার কেন্দ্রের তথ্য প্রেরকের সন্তান
কাদিরজঙ্গল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আহসান
হাবীব, শহীদ আবুল বাশার মহিউদ্দিন আহমেদের সন্তান আসাদুজ্জামান
সোহেল, লেখক জাহাঙ্গীর কবির, ভোরের আলো সাহিত্য আসরের সাধারণ
সম্পাদক আমিনুল হক সাদী, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ুন কবীর
রেহান, শিল্পী মাজহারুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান শাহীন মিয়া, দন্ত
চিকিৎসক হীরা মিয়া, শিল্পী আনোয়ার উদ্দিন আউয়াল প্রমুখ। পরে
শহীদ আবুল বাশার মহিউদ্দিন আহমেদ ও নূও হোসেন স্মরণে বিশেষ
দোয়া করা হয়।
বক্তারা বলেন ১৯৭১ সালের ১০ নভেম্বর কিশোরগঞ্জ শহরের কাঁচারিবাজার
মসজিদের কাছ থেকে আবুল বাশার মহিউদ্দিন আহমেদকে ধরে নিয়ে যায় আলবদর কমান্ডার অ্যাডভোকেট জহিরুল হকের নেতৃত্বে তার সঙ্গীয়
রাজাকাররা। পরে ওইদিনই এবি মহিউদ্দিন আহমেদকে হত্যা করা হয়। কিন্তু
পরিতাপের বিষয়, বর্তমানে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায়বিশ্বাসী আওয়ামী লীগ
সরকার ক্ষমতায় থাকলেও অদৃশ্য কারণে আলবদর কমান্ডার অ্যাডভোকেট
জহিরুল হককে কঠোর শাস্তির আওতায় আনতে পারেনি। এটি দুঃখজনক।
সভায় ভোরের আলো সাহিত্য আসরের সদস্যগণ, শহীদ পরিবার ও স্বজনদের
লোকজনসহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

 

Comments are closed.

     এই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ