আজ ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কিশোরগঞ্জে নতুন ২৪ জনের করোনা শনাক্ত

কিশোরগঞ্জে জেলার করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সর্বশেষ মঙ্গলবার (১৫ জুন) রাতে প্রকাশিত রিপোর্টে জেলায় মোট ২৪ জন নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর বিপরীতে করোনাভাইরাস মুক্ত হয়ে জেলায় এদিন সুস্থ হয়েছেন মোট ১৫ জন।

এ পরিস্থিতিতে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বর্তমান রোগীর সংখ্যা ৯ জন বেড়েছে। আগের দিন সোমবার (১৪ জুন) জেলায় বর্তমান আক্রান্তের মোট সংখ্যা ছিল ২৩১ জন। ফলে মঙ্গলবার (১৫ জুন) বর্তমান রোগীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে মোট ২৪০ জন।

জেলায় নতুন করোনা শনাক্ত হওয়া ২৪ জনের মধ্যে ২১ জনই কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলাতে শনাক্ত হয়েছে।

ছাড়া বাকি ৩ জনের মধ্যে হোসেনপুর উপজেলায় ১ জন, পাকুন্দিয়া উপজেলায় ১ জন এবং ভৈরব উপজেলায় ১ জন শনাক্ত হয়েছে।

ফলে শনাক্ত, সুস্থ ও মৃত্যু সব সূচকেই জেলার মধ্যে শীর্ষে থাকা কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার পরিস্থিতি ক্রমশ অবনতির দিকে যাচ্ছে।

কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজের আরটি-পিসিআর ল্যাবে হাসপাতালটির প্রি-আইসোলেশনে ভর্তিকৃত জরুরী রোগীসহ সোমবার (১৪ জুন) ও মঙ্গলবার (১৫ জুন) সংগৃহীত মোট ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২৩ জনের কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছে। রিপোর্টে মোট ১৭৩ জনের নমুনা পরীক্ষার ফলাফল দেওয়া হয়েছে।

বাকি ৭৯ জনের মধ্যে ৬৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে বাজিতপুরের জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আরটি-পিসিআর ল্যাবে। সেখানে সোমবার (১৪ জুন) এই ৬৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে সবারই কোভিড-১৯ নেগেটিভ এসেছে।

এছাড়া কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল ও ইটনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১১ জনের রেপিড এন্টিজেন টেস্টে ১ জনের কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছে।

নতুন সুস্থ হওয়া ১৫ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ৯ জন রয়েছে।

এছাড়া বাকি ৬ জনের মধ্যে হোসেনপুর উপজেলার ১ জন, কটিয়াদী উপজেলার ৪ জন এবং ইটনা উপজেলার ১ জন সুস্থ হয়েছে।

কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কোভিড ইউনিটে বর্তমানে আক্রান্ত ও সন্দেহজনক মোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৪৪ জন যাদের মধ্যে ৮ জন আইসিইউতে রয়েছেন।

গত ২৪ ঘন্টায় ৩ জন নতুন ভর্তি হয়েছেন এবং ৬ জন ছাড়পত্র পেয়েছেন।

এই সময় পর্যন্ত জেলায় মোট ৫১০৬ জন শনাক্ত, ৪৭৮১ জন সুস্থ এবং ৮৫ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

বর্তমানে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী ২৪০ জন। তাদের মধ্যে ২৬ জন হাসপাতাল ও ২১৪ জন হোম আইসোলেশনে রয়েছেন।

শনাক্ত, সুস্থ ও মৃত্যু সব সূচকেই জেলার মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা শীর্ষে রয়েছে।

জেলার ইটনা, মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম এ তিন হাওর উপজেলায় বর্তমানে করোনা আক্রান্ত কোন রোগী নেই।

বর্তমানে করোনা আক্রান্ত মোট ২৪০ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ১৮০ জন, হোসেনপুর উপজেলায় ৩ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ৩ জন, তাড়াইল উপজেলায় ৯ জন, পাকুন্দিয়া উপজেলায় ১১ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ১০ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ১২ জন, ভৈরব উপজেলায় ৯ জন, নিকলী উপজেলায় ১ জন এবং বাজিতপুর উপজেলায় ২ জন রয়েছেন।

এদিকে গত ৭ ফেব্রুয়ারি ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর গত ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত মোট ৭৬ হাজার ৬৬৫ জন প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন। এরপর থেকে প্রথম ডোজ দেয়া আপাতত বন্ধ রয়েছে।

অন্যদিকে গত ৮ এপ্রিল থেকে এ পর্যন্ত মোট ৫৮ হাজার ৭৪২ জন দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিয়েছেন।

এর মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় ১৫০ জন দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিয়েছেন।

কিশোরগঞ্জ জেলার সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

Comments are closed.

     এই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ