আজ ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কিশোরগঞ্জে ঈদ উপহার পেল ৪৮৬ অসহায় গৃহহীন পরিবার

 

কিশোরগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার হিসেবে পাকা ঘর পাচ্ছেন ৪৮৬ অসহায় ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার। আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় আগামীকাল মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে উপকারভোগীদের ওইসব ঘরের চাবি, জমির দলিল ও কবুলিয়ত হস্তান্তর করবেন। সোমবার (২৫ এপ্রিল) দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম সাংবাদিকদের এসব কথা জানিয়েছেন।

তিনি জানান, কিশোরগঞ্জ জেলায় এখন পর্যন্ত আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় ১ম ও ২য় পর্যায়ে ১২৪৭টি (৬১৬+৬৩১) ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমিসহ গৃহ প্রদানের মাধ্যমে পুনর্বাসন করা হয়েছে। বর্তমানে জেলায় ৩য় পর্যায়ের ৬২৮টি ঘরের নির্মাণকাজ চলমান রয়েছে যার মধ্যে ৪৮৬টি ঘর আগামীকাল মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করবেন।
জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম জানান, কিশোরগঞ্জ জেলায় ২০২০ সাল হতে অদ্যাবধি আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় একক গৃহ নির্মাণের জন্য প্রায় ৫১.৭৪ একর খাস জমি উদ্ধার করা হয়েছে যার আনুমানিক বাজারমূল্য ৭৬ কোটি ১২ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা।
এ সময় স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ নুরুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) গোলাম মোস্তফা, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ফারজানা খানম, সাংবাদিক সাইফুল হক মোল্লা দুলু, মোস্তফা কামাল, এ এম উবায়েদ, আব্দুর রব, সাজন আহম্মেদ পাপনসহ জেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ৩২, করিমগঞ্জ ২৩,নিকলী ৫২, পাকুন্দিয়া ১৮, অষ্টগ্রাম ৩২, হোসেনপুর ১০, কুলিয়ারচর ৫২, ভৈরব ৭৩, বাজিতপুর ৪৮, কটিয়াদী ১৩, তাড়াইল ৪৬, মিঠামইন ১৭৮, ইটনা ৫১ টি ঘর প্রদান করা হবে। তৃতীয় ধাপে জেলায় মোট ৬২৮টি ঘর প্রদান করা হবে।
এদিকে জমি ও ঘর না থাকা ছন্নছাড়া অসহায় পরিবারগুলো এতদিন পর জমিসহ মাথা গুজার ঠাঁই পাচ্ছে বলে তাদের মাঝে বিরাজ করছে ব্যপক উৎসাহ-উদ্দীপনা। এবার ঈদের আনন্দটাই তাদের জীবনে অন্যরকম হয়ে দেখা দেবে। এজন্য তারা বেজায় খুশি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞ।

 

Comments are closed.

     এই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ