আজ ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কঠোর নিরাপওার চাদরে ঢাকা কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ঈদগাহ

দুই বছর পর আবারও অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহে ১৯৫তম ঈদ জামাত। এশিয়ার বৃহত্তম এ ঈদ জামাতে অংশগ্রহণ করা নিয়ে কিশোরগঞ্জবাসীর মনে বয়ে যাচ্ছে স্বর্গীয় অনুভূতির আমেজ। দিন যাচ্ছে ঘনিয়ে আসছে ঈদ-উল-ফিতর। প্রস্তুত করা হচ্ছে শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠ। ইতিমধ্যে শোলাকিয়া মাঠ প্রস্তুত হয়েছে বলে জানিয়েছে শোলাকিয়া ঈদগাহ পরিচালনা কমিটি। এবার চার স্তরে নিরাপত্তা বলয়ের বেষ্টনি থাকবে। কঠোর নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকবে শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠ।
জানা যায়, ১৭৫০ সাল থেকে শোলাকিয়া মাঠে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। সে হিসাব অনুসারে শোলাকিয়া ঈদগাহের বয়স ২শ’ ৭১ বছর।
প্রতি বছরই ঈদুল ফিতরের দিন শোলাকিয়া ঈদগাহ পরিণত হয় মুসলিম সম্প্রদায়ের মহামিলন ও বাড়ি বাড়ি ঈদের আমেজে আত্নীয়স্বজন বন্ধু-বান্ধন পাড়া প্রতিবেশীরা পোলাও মাংস খাওয়া এই দিনটি শোলাকিয়াবাসী অনেক অানন্দ উপভোগ করেন। এক কাতারে দাঁড়িয়ে নামাজ আদায় করেন ধনী-গরীব নির্বিশেষে। সবার উদ্দেশ্য একটাই, যেন কোন অবস্থাতেই হাত ছাড়া হয়ে না যায় জামাতে অংশ গ্রহণ, আল্লাহর সান্নিধ্য লাভের সুযোগ। সাম্য ও ন্যায়ের ভিত্তিতে এক নতুন সমাজ গড়ার শিক্ষা নিয়েই জামাত শেষে বাড়ির পথে শোলাকিয়া ছাড়েন তাঁরা।

ঈদগাহ কমিটির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম বলেন, শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠের সকল প্রস্তুতি শেষ। এবার ঈদ-উল-ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ১০টায়। নামাজ পড়াবেন আল্লামা ফরিদ উদ্দিন মাসউদ। এবারের জামাতে জায়নামায ও মাস্ক ছাড়া প্রবেশ করা যাবে না।

পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার) বলেন, শোলাকিয়া ঈদগাহ নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকবে। চার স্তরের নিরাপত্তা বলয়ে ঈদের জামাত সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা ও বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হবে।ড্রোন ক্যামেরাসহ ৫ প্লাটুন বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশসহ অন্যান্য গোয়েন্দা বাহিনী মোতায়েন করা হবে। তাছাড়াও মাঠে ওয়াচ টাওয়ার স্থাপন এবং সিসি ক্যামেরা দ্বারা পুরো মাঠ মনিটরিং করা হবে। এ কাজে পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকে পুলিশ মোতায়েন থাকবে।

 

Comments are closed.

     এই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ