আজ ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কিশোরগঞ্জে মটরযান শ্রমিক ইউনিয়নের অবৈধ নির্বাচন বন্ধের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

কিশোরগঞ্জ জেলা মটরযান শ্রমিক ইউনিয়নের (রেজিঃ নং- ১৮৯৫) নির্বাচনে অবৈধ ভোটার তালিকা, অবৈধ সাধারণ সভা এবং সর্বোপরি পাতানো নির্বাচন বন্ধের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন একাংশের নেতাকর্মীরা। সোমবার (১৩ জুন) দুপুরে জেলা পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন কিশোরগঞ্জ জেলা মটরযান শ্রমিক ইউনিয়নের প্রতিষ্ঠাকালীন সাংগঠনিক সম্পাদক ও ১৪ বারের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এবিএম সিরাজুল ইসলাম। তিনি তার বক্তব্যে অভিযোগ করেন, অবৈধ লাইসেন্স ব্যবহারের মাধ্যমে বহিরাগত শ্রমিকদের ভর্তি করা হয়েছে। গত তিন বছরে সরকারিভাবে ৪৭০ জনকে লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে। অথচ প্রায় ১৩০০ জনকে নতুন ভোটার করা হয়েছে। একটি পরিপূর্ণ নির্বাচনের স্বার্থে স্বচ্ছ ভোটার তালিকা করতে হবে। এবিএম সিরাজুল ইসলাম অভিযোগ করেন, গঠনতন্ত্রের ২৪ এর খ ধারায় উল্লেখ আছে, ইউনিয়ন হতে ঋণ গ্রহীতা কোন কর্মকর্তা বা সদস্য ঋণ পরিশোধ না করে নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে পারবেন না। অথচ ইউনিয়নে বর্তমান সভাপতি ও সভাপতি প্রার্থী কায়সার আহম্মেদ কাইয়ুমের কাছে ১৩ লাখ ৭২ হাজার ১২০ টাকা খেলাপি ঋণ রয়েছে। একইভাবে কার্যকরী সভাপতিসহ কার্যকরী কমিটির ১০ জন ঋণ খেলাপী হওয়ার পরও প্রার্থী হয়েছেন। এছাড়া সাত সদস্যবিশিষ্ট নির্বাচন পরিচালনা পরিষদের প্রধান মৃত্যুবরণ করলে ১নং সদস্যকে বাদ দিয়ে ৪নং সদস্যকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান ও পরবর্তী সময় প্রদান করা হয়েছে। অন্যদিকে গত ৮ মে অনুষ্ঠিত বার্ষিক সাধারণ সভায় কোরাম সংকট ছিল। এবিএম সিরাজুল ইসলাম জানান, এসবের মাধ্যমে আগামী ১৮ জুন একটি পাতানো নির্বাচন অনুষ্ঠানের আয়োজন চলছে। এর প্রতিবাদে মঙ্গলবার (১৪ জুন) সকালে বিক্ষোভ মিছিল করা হবে। এছাড়া শ্রমিকদের অধিকার সুরক্ষায় নির্বাচন প্রতিরোধ করা হবে। সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে জেলা মটরযান শ্রমিক ইউনিয়নের দপ্তর সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন, প্রচার সম্পাদক মো. দিলাল ইসলাম উজ্জল, মো. আলী আকবর, মো. হারিছ মিয়া, মো. আকরামুল হক আকরাম, মো. চঞ্চল মিয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Comments are closed.

     এই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ