আজ ১০ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

অবসরে গেলেন উলিপুরের অন্যতম মেধাবী শিক্ষক প্রফেসর মোঃ আইনুল ইসলাম জুয়েল 

আসলাম উদ্দিন আহম্মেদ,কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধিঃঅবসরে গেলেন কুড়িগ্রামের উলিপুরের অন্যতম মেধাবী শিক্ষক প্রফেসর মোঃ আইনুল ইসলাম (জুয়েল)।তিনি উত্তর বঙ্গের অন্যতম শীর্ষস্হানীয় বিদ্যাপীঠ কারমাইকেল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের গণিত বিভাগের বিভাগীয় প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন শেষে ৭ নভেম্বর চাকুরী থেকে অবসর গ্রহণ করেন।ছাত্র জীবনে অত্যন্ত মেধাবী এ শিক্ষক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স ও মাস্টার্সে মেধাক্রমে প্রথম শ্রেণীতে ২য় হয়েছিলেন। ১৩ তম বিসিএস – এ গণিতে ১ম স্হান পেলেও তিনি ১৪ তম বিসিএস পরীক্ষায় গণিত বিষয়ে ৩য় স্হান অধিকার করে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন । অত্যন্ত মেধাবী, সৎ ও নীতিবান শিক্ষক হিসেবে তিনি ছাত্রদের কাছে প্রিয়ভাজন ছিলেন।
 তিনি ১৯৮০ সালে উলিপুর মহারাণী স্বর্ণময়ী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে   তিন বিষয়ে লেটার মার্কস সহ প্রথম শ্রেণী পেয়ে উত্তীর্ণ হন, কারমাইকেল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে এইচ এস সি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে  প্রথম শ্রেণী পেয়ে  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গণিত বিভাগে ভর্তি হন। অনার্স ও মাস্টার্সে তিনি প্রথম শ্রেণীতে ২য় হন।এরপর  দুর্নীতি দমন কমিশনে ইন্সপেক্টর হিসেবে ১বছর চাকুরী করেন।পরবর্তীতে ১৪ তম বিসিএস পরীক্ষায় মেধা তালিকায় ৩য় হয়ে গণিত বিভাগের প্রভাষক হিসেবে নওগাঁ সরকারি কলেজে যোগদান করেন। দীর্ঘ ৩০ বছর চাকুরী শেষে গত ৭ নভেম্বর কারমাইকেল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে প্রফেসর ও বিভাগীয় প্রধান হিসেবে অবসর গ্রহণ করেন।উল্লেখ্য, যে উনি ১৩ তম সাধারণ বিসিএস পরীক্ষায় মেধা তালিকায় গণিতে ১ম স্হান পেলেও ১৪ তম বিসিএস এর নিয়োগ আগে হওয়ায় তিনি ১৪তম বিসিএস এ আগেই যোগদান করেন।
পারিবারিক জীবনে ১০ ভাই-বোনের মধ্যে তার অবস্থান ৬ নম্বর। তার সহধর্মীনি সৈয়দপুর সরকারি কলেজ এর প্রভাষক হিসেবে কর্মরত।তিনি  এক পুত্র ও এক কন্যা সন্তানের জনক।
  তার বাবা বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নজির হোসেন আহমেদ স্বাধীনতার পূর্বে চিলমারীর ব্রহ্মপূত্র বাবার নাম – নজির হোসেন আহমেদ। তিনি চিলমারীর রমনা বাজারের ” লাকী জুট সাপ্লাইয়ার্স ” নামক জুট সিপার্স এর ম্যানেজিং পার্টনার ছিলেন।
নদের ভাঙ্গনে বসত ভিটা হারিয়ে  স্বপরিবারে উলিপুর উপজেলার কালুডাঙ্গা নামক স্হানে চলে আসেন। তার বড় ভাই ডাঃ সাজেদুল ইসলাম একজন বীরমুক্তিযোদ্ধা।তার অন্যান্য ভাই ও পরিবারের সদস্যরা অত্যন্ত মেধাবী। তার বড় ভাইয়ের ছেলে আহমেদ শিবলী শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপসচিব   হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন, তার অন্য ছোট ভাই কামরুল ইসলাম জেলা নির্বাচন অফিসার, এক ভাই বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের বিশিষ্ট আইনজীবী, এক ভাই মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক ছিলেন।

Comments are closed.

     এই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ