আজ ১৪ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কিশোরগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় স্বামী স্ত্রী আহত বাড়ি ঘর ভাংচুর ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

 

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি: কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা সংলগ্ন এলাকায় পুর্ব বিরোধের জেরে
প্রকাশ্যে দিনের বেলায় চাকুরীজীবী শামসুল ইসলাম রাজিবের পরিবার পরিজন ও বাড়িঘরে
অবৈধভাবে প্রবেশ করে অতর্কিত সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে নারী পুরুষকে মারধোর, ঘরের দরজা
জানালা আসবাবপত্র ব্যাপক ভাংচুর ও নগদ কয়েক লক্ষাধিক টাকা লুটে নিয়েছে সন্ত্রাসীরা। এ
বিষয়ে আহত শামসুল ইসলামের স্ত্রী হোসনে আরা বেগম বাদী হয়ে কিশোরগঞ্জ মডেল থানায়
একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
অভিযোগের বিবরণে জানা গেছে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার মহিনন্দ ইউনিয়নের ভাটুয়াপাড়ার
বাসিন্দা শামসুল ইসলাম রাজীবের পরিবারের সাথে একই এলাকার মো: আবুল হাসেম ও তার পুত্র
আবু বাক্কারের সাথে জমি নিয়ে পুর্ব বিরোধ চলছিলো। গত ২৭ ডিসেম্বর সকালে পুর্ব
পরিকল্পিতভাবে ১০/১২ জনের একটি দল দেশিয় অস্ত্রে সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে শামসুল ইসলাম রাজীবের
বাড়িতে অনধিকারচর্চায় প্রবেশ করে তার নাম ধরে ডাকাডাকি করে। তিনি ঘর থেকে বের
হলেই অতর্কিত হামলা চালিয়ে মারপিট করে গুরুতর আহত করে। রাজীবকে বাঁচাতে স্ত্রী হোসনে
আরা বেগম এগিয়ে এলে তাকেও মারপিট করে শ্লীলতাহানী করে। এ সময় তার গলায় থাকা ১ লক্ষ
টাকা মূল্যোর ১ভরি ওজনের একটি স্বর্ণের চেইন নিয়ে যায়। হামলাকারীরা তাদের বসত ঘরে
প্রবেশ করে আসবাবপত্র তছনছ করে, টিনের বাউন্ডারী,ঘরের দরজা জানালা কুপিয়ে লক্ষাধিক টাকার
মালামাল ক্ষতি সাধন করে ঘরে থাকা নগদ ২ লক্ষ ১৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। পরে স্থানীয়
এলাকাবাসী তাদের ডাক চিৎকারে এগিয়ে আসলে জমিজমা নিয়ে বেশি বাড়াবাড়ি করলে
স্বামীসহ স্ত্রীকে মেরে ফেলবে বলে হুমকি দিয়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। এলাকাবাসী আহত
স্বামী ও স্ত্রীকে উদ্ধার করে জেলা ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করেন। খবর
পেয়ে কিশোরগঞ্জ মডেল থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
আহত হোসনে আরা বেগম ও তার স্বামী শামসুল ইসলাম রাজীব জানান, একটি প্রভাবশালী
ভূমিচক্র মহলের ইন্ধনে সন্ত্রাসীরা পুর্ব পরিকল্পিতভাবে হামলা চালিয়ে আমাদেরকে মারধোর করে।
অবৈধভাবে বাড়িতে প্রবেশ করে ঘরের দরজা জানালা বেড়া আসবাবপত্র ব্যাপক ভাংচুর চালিয়ে
কয়েক লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধনসহ ১ লক্ষ টাকা মূল্যোর ১ভরি ওজনের একটি স্বর্ণের চেইন ও
নগদ শোয়া দুই লাখ টাকা লুটে নিয়েছে সন্ত্রাসীরা। আমরা নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছি।
সন্ত্রাসীরা আমাদেরকে হুমকি ধমকি দিয়ে যাচ্ছে।
এ বিষয়ে কিশোরগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফার সাথে
যোগাযোগ করা হলে তিনি প্রতিবেদককে জানান, অভিযোগটি দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা
নেওয়া হবে।

Comments are closed.

     এই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ