আজ ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

রমজানে দশ টাকা লিটারে দুধ বিক্রি,সরকারের কাছ থেকে ‘বেস্ট প্র্যাকটিস সম্মাননা’ পেলেন এরশাদ

ফারুকুজ্জামান,কিশোরগঞ্জ :রমজানে দশ টাকা লিটারে দুধ বিক্রি করে ভোক্তা পর্যায়ে অবদান রাখায় সরকারের কাছ থেকে ‘বেস্ট প্রাকটিস সম্মাননা’ পেয়েছেন করিমগঞ্জের জেসি এগ্রো ফার্মের চেয়ারম্যান মো: এরশাদ উদ্দিন।

গতকাল শুক্রবার (১৫ মার্চ) দুপুরে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস ২০২৪ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তাকে এ সম্মাননা দেওয়া হয়।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

সেখানে আলোচনায় বক্তারা এরশাদ উদ্দিনের উদ্যোগকে ব্যবসায়ীদের জন্য অনুকরণীয় বিষয় হিসেবে তুলে ধরেন।

 

অনুষ্ঠানে তার হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট ও সনদ তুলে দেন বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু এবং মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ।

এ সময় অন্যদের মধ্যে এফবিসিসিআই সভাপতি মাহবুবুল আলম, ক্যাব সভাপতি গোলাম রহমান, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) এ. এইচ. এম. সফিকুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

সম্মাননা পাওয়ার পর অনুভূতি জানিয়ে এরশাদ উদ্দিন বলেন, দেশের সংবাদ মাধ্যম আমার পাশে থাকায় আমি এ কাজে উৎসাহ পেয়েছি। আগামীতে যেন সৎপথে থেকে বাংলাদেশের অগ্রগতিকে এগিয়ে নেয়ার কাজে আরো যুক্ত হতে পারি এই প্রত্যাশা।

এরশাদ উদ্দিনের বাড়ি কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলার নিয়ামতপুর ইউনিয়নের রৌহা গ্রামে।

গত চার-পাঁচ বছরে তিনি নিজ এলাকায় ‘জেসি এগ্রো ফার্ম’ নামে কৃষি ও প্রাণিসম্পদ সমন্বিত একটি খামার গড়ে তোলেন।
খামারটিতে কোরবানির ঈদ সামনে রেখে বর্তমানে পাঁচ শতাধিক গরু মোটাতাজা করা হচ্ছে। একইসাথে উন্নতজাতের ২৫টি গাভিও পালন করা হচ্ছে। গাভিগুলো প্রতিদিন ৭৫ লিটার দুধ দিচ্ছে। এই দুধ ১০ টাকা লিটারে রমজান মাসজুড়ে রোজাদারদের জন্য বিক্রি করছেন তিনি।

সে অনুযায়ী রোজার প্রথম দিন থেকে প্রতিদিন ৭৫ জনের কাছে এক লিটার করে দুধ বিক্রি শুরু করেছেন তিনি।

এই সংবাদ জাতীয় গণমাধ্যমে প্রচার হয়। সংবাদটি সারাদেশে আলোড়ন সৃষ্টি করে। পরে এটি প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টিতে পড়ে।
তাঁর নির্দেশেই মূলত এরশাদ উদ্দিনকে ‘বেস্ট প্রাকটিস সম্মাননা’ দেয়া হয়।

 

আলহাজ্ব এরশাদ উদ্দিন বাংলাদেশ মিলস্কেল রি-প্রসেস অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতিএবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপ কমিটির সদস্য। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন পণ্য আমদানি রফতানির ব্যবসার সাথে জড়িত।

বিভিন্ন সামাজিক ও সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গেও যুক্ত এই উদ্যোক্তা।

তার প্রতিষ্ঠিত ‘এরশাদ উদ্দিন মানবকল্যাণ ফাউন্ডেশন’র মাধ্যমে করিমগঞ্জসহ আশপাশের এলাকার মানুষকে নিয়মিত আর্থিক অনুদান ও সহযোগিতা করে থাকেন। তা ছাড়া শিক্ষা প্রসারে এলাকায় নিজের খরচে একটি কলেজ ও স্কুল করেছেন। ঈদ ও পূজার সময়ও প্রতিবছর লোকজনকে বড় ধরনের আর্থিক অনুদান ও কাপড়চোপড় দিয়ে থাকেন তিনি।

Comments are closed.

     এই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ