আজ ১৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৩১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কিশোরগঞ্জে যুব উন্নয়নে ৭ দিন ব্যাপী হাঁস মুরগী পালন বিষয়ক প্রশিক্ষণ

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ মুজিববর্ষের অহবান, যুব কর্মসংস্থান এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার মহিনন্দ ইউনিয়নের অবস্থিত যুব সংগঠন ‘যুব উন্নয়ন পরিষদ’র সহযোগিতায় যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের
উদ্যোগে বেকার যুবদের আতœকর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষে দক্ষতাবৃদ্ধিমুলক ৭ দিন ব্যাপী পারিবারিক হাঁস মুরগী পালন বিষয়ে অ-প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ শুরু হয়েছে। রবিবার সকালে আনুষ্ঠানিক ভাবে প্রশিক্ষণের শুভ উদ্বোধন করেন মহিনন্দ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ইউপি চেয়াম্যান মো. মনসুর আলী। যুব উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি যুব সংগঠক মো. আমিনুল হক সাদীর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার সহকারী যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মোঃ সিদ্দিকুর রহমান। বক্তব্য রাখেন মহিনন্দ ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ কামাল উদ্দিন, যুব উন্নয়ন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মোঃ এনামুল হক শামীম, সহ সাধারণ সম্পাদক শিল্পী নিরব রিপন, মহিনন্দ ইতিহাস ঐতিহ্য সংরক্ষণ পাঠাগারের সাধারণ সম্পাদক মোঃ রিয়াদ হোসাইন প্রমুখ।

জানা যায় ,মহিনন্দ ইউনিয়নের প্রশিক্ষিত আত্মকর্মী যুবক আমিনুল হক সাদী ২০১০ সালের ৩ মার্চ বেকার যুব ও যুব নারীদের নিয়ে প্রতিষ্ঠা করেন ‘যুব
উন্নয়ন পরিষদ’ নামের এ সংগঠনটি। এ সংগঠনের মাধ্যমে বেকার যুব ও যুব নারীদেরকে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরসহ বিভিন্ন অফিসের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ প্রদান করে আত্মকর্মী হিসেবে গড়ে তোলে যাচ্ছেন। ইতোমধ্যে এ সংগঠনের মাধ্যমে কয়েত শতাধিক বেকার যুব ও যুব নারীকে বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করে স্বাবলম্বী হিসেবে গড়ে তোলেছেন। যুব উন্নয়ন পরিষদ এর সভাপতি আত্মকর্মী যুবক আমিনুল হক সাদী বলেন,২০০৪ সালে কিশোরগঞ্জ যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মাধ্যমে তিন মাসব্যাপী প্রশিক্ষণ নিয়ে প্রশিক্ষণলব্দ জ্ঞান বাস্তব জীবনে প্রয়োগ করি। মাস্টার্স ডিগ্রী পড়েও কোন সরকারী চাকুরীর দিকে না থাকিয়ে বেকার জনগোষ্ঠীদের নিয়ে কাজে নেমে যাই। যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের সহায়তায় ‘সাদী সমন্বিত কৃষি খামার’ গড়ে তোলি। আমার একটু প্রচেষ্টায় বেকার যুব স¤প্রদায় স্বাবলম্বী হলে নিজের কাছে বড় শান্তি লাগে। কিশোরগঞ্জ যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের তৎকালীন উপপরিচালক মোঃ রোকন উদ্দিন ভ‚ঞা স্বাক্ষরিত ‘যুব উন্নয়ন পরিষদ’কে যুব সংগঠন (নিবন্ধন ও পরিচালনা) আইন ২০১৫ এর ধারা ৪ এবং যুব সংগঠন (নিবন্ধন ও পরিচালনা) বিধিমালা ২০১৭ এর বিধি ৩ (৪) এর অধীন নিবন্ধন সনদ প্রদান করলে আমার উৎসাহ আরও বেড়ে যায়।
প্রশিক্ষণে মহিনন্দ ইউনিয়নের ৩০ জন বেকার যুব ও যুব নারী অংশ নেন। প্রশিক্ষণটি আগামী ১৬ আক্টোবর পর্যন্ত চলবে বলে জানা গেছে। প্রশিক্ষণশেষে সকল প্রশিক্ষণাথীগণকে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের সনদ প্রদান করা হবে।
প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন এআল নোমান, পপি বেগম, মো. শাহবিয়া আলম। যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের আয়োজনে মহিনন্দ ইতিহাস ঐতিহ্য সংরক্ষণ পরিষদ ও পাঠাগারের সহযোগীতায় প্রশিক্ষণে ৩০ জন যুব নারী ও পুরুষ অংশ নেন। আগামী ৪ জুন পর্যন্ত সকাল ১১টা থেকে ১টা পর্যন্ত উক্ত প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চলবে।

Comments are closed.

     এই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ